পরকালীন প্রস্তুতি

কুর'আন-সুন্নাহর আলোকে পরকালীন মুক্তির আশায় একটি পরকালমুখী উদ্যোগ

আল্লাহর ক্ষমার দৃষ্টান্ত


মূসা (আ:) এর সময় একবার প্রচন্ড খরা হয়েছিল। একদিন জনবসতির সবাই একত্রিত হলো আকাশের দিকে হাত উঠিয়ে প্রার্থনা করার জন্য।

মুসা (আ:) এবং অন্যরা যখন প্রার্থনা করছিল তখন তারা অবাক হয়ে লক্ষ্য করল, আকাশে কয়েকটি বিক্ষিপ্ত মেঘ অদৃশ্য হয়ে গেল, তাপ উধাও হয়ে গেল, এবং খরাটি আরও তীব্রতর হল।

মুসা (আ:) কে তখন আল্লাহ রাব্বুল আলামীন বললেন,
বনী ইসরাইলের এই গোত্রের মধ্যে একজন পাপী আছে, যে চল্লিশ বছরেরও বেশি সময় ধরে আল্লাহ কে অমান্য করছে। তাকে এই গোত্র থেকে আলাদা করলেই কেবল বৃষ্টি নামবে।

মুসা (আ:) তখন লোকদের ডেকে বললেন, "আমাদের মধ্যে এমন একজন ব্যক্তি আছেন যিনি চল্লিশ বছর ধরে আল্লাহর অবাধ্য আছে। সে যদি এই জনমন্ডলী থেকে আলাদা হয়ে যায় তখনই আমরা খরা থেকে মুক্তি পাব ও বৃষ্টির দেখা মেলবে।

পাপী ব্যক্তি টি তখন সেখানেই ছিল। সে অপেক্ষা করছিল, বাম ও ডান দিক তাকিয়ে আশা করছিল যে অন্য কেউ এগিয়ে যাবে, কিন্তু কেউ তা করেনি।
লোকটি জানত যে, সে যদি জনমন্ডলীর মধ্যে থাকে তাহলে সবাই মারা যাবে এবং তিনি যদি অগ্রসর হয় তিনি চিরকালের জন্য অপমানিত হবেন।

এ অবস্থায় সে অশ্রু বিগবিগলিত করে প্রার্থনা করল, "হে আল্লাহ! আমার প্রতি দয়া করুন! হে আল্লাহ আমার গুনাহ গোপন করুন! আল্লাহ আমাকে ক্ষমা করুন! "।

মুসা(আ:) ও বনী ইসরাইলের লোকেরা পাপী ব্যক্তিটির এগিয়ে যাওয়ার অপেক্ষা করছিল, কিন্ত হঠাৎ বৃষ্টি বর্ষন শুরু হলো।

মুসা (আ:) আল্লাহ কে জিজ্ঞাসা করলেন, " হে আল্লাহ, তুমি আমাদের কে বৃষ্টি দিয়ে আশীর্বাদ করেছ যদিও পাপী ব্যক্তিটি এগিয়ে আসেনি।
.
আল্লাহ রাব্বুল আলামীন উত্তর দিলেন, সেই ব্যক্তিটির অনুতাপের জন্যই আমি বৃষ্টি দিয়ে আশীর্বাদ করেছি।
মুসা ( আ:) জানতে চাইলে কে সেই সৌভাগ্যবান ব্যক্তি টি?
আল্লাহ তায়ালা বললেন, "হে মুসা আমি চল্লিশ বছর যাবত তার গুনাহ গোপন করেছি, তোমরা কি মনে কর তার অনুতাপের পর ও তাকে আমি প্রকাশ করব"?
-----
-কিতাবুত্তাওয়াবিন; পৃষ্ঠাঃ ৬৮, জিবালুল জুনুব; পৃষ্ঠাঃ ১০১

কোন মন্তব্য নেই