পরকালীন প্রস্তুতি

কুর'আন-সুন্নাহর আলোকে পরকালীন মুক্তির আশায় একটি পরকালমুখী উদ্যোগ

যে ব্যক্তির দিকে তাকিয়ে আল্লাহ হাসেন


আল্লাহর রাসূল ﷺ বলেছেন, তিন ধরনের লোক আছে যাদের দেখে সর্বশক্তিমান আল্লাহ হাসেন এবং তিনি তাদের দিকে তাকিয়ে মুচকি হাসেন।

চিন্তা করুন, আল্লাহ, যিনি সারা বিশ্বজাহানের অধিপতি, রাজাধিরাজ, আপনার দিকে তাকিয়ে হাসছেন! কি এমন কাজ তারা করেছে যে কাজে আল্লাহ তাদের প্রতি এত খুশি হয়ে যান?

রাসূল ﷺ বলেন আল্লাহ তিন ধরনের লোককে ভালোবাসেন এবং তিনি তাদের দিকে তাকিয়ে হাসেন আর তিনি তাদের উপর সন্তুষ্ট!

এর মধ্যে এক শ্রেনী হচ্ছে সেই লোক যার সুন্দরী স্ত্রী আছে এবং খুব আরামদায়ক বিছানা আছে। কিন্তু সে রাতে সুন্দরী স্ত্রী, আরামের বিছানা ত্যাগ করে আল্লাহর দরবারে সালাতের জন্য দাঁড়িয়ে যায়। আল্লাহ তাঁর এই বান্দাকে ফেরেশতাদের দেখিয়ে বলেন, দেখো সে তার আরামের ঘুম ত্যাগ করল,প্রবৃত্তিকে দমন করে আমার স্মরণে দাঁড়িয়ে গেল। ইচ্ছা করলে সে নিদ্রা উপভোগ করতে পারতো, নিজের প্রবৃত্তির চাহিদা মিটাতে পারতো।'' (সহীহ তারগীব, হাদিস নং ৬২৩)

আল্লাহ আযযা ওয়া যাল এই ব্যক্তিকে দেখে হাসবেন- সুবহান আল্লাহ্!

আমরা কি চিন্তা করতে পারছি আল্লাহ যদি কাউকে দেখে হাসেন, কারো উপর খুশি হয় তাহলে তার কি অবস্থা হবে,তার জন্য কি অপেক্ষা করছে?

ঈমাম আহমেদ তাঁর মুসনাদে আহমেদ এ বলেন, ''আল্লাহর রাসূল ﷺ বলেন, যখন আমাদের রব কাউকে এ দুনিয়ার জীবনে দেখে হাসবেন। তার বিচার দিবসে কোন হিসেব দিতে হবে না, বিনা হিসেবে সে জান্নাতে প্রবেশ করবে। কিয়ামত দিবসের যত ভয়ানক ঘটনা ঘটবে কোন কিছু তাকে স্পর্শ করবে না। সে সব কিছু থেকে রক্ষা পাবে। কারন, তাদের কোন হিসেবের মুখোমুখি হতে হবে না। কবরের ভয়াবহ আযাব,ইয়ামুল কিয়ামাহর ভয়ংকর পরিস্থিতি, মাথার উপরের সূর্য, মিযান, পুলসিরাত, কোন ধরনের জবাবদিহিতার মুখোমুখি তাকে হতে হবে না। সে সব কিছু থেকে মুক্ত।"

এটাই ঘটবে যখন আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তায়ালা কারো দিকে তাকিয়ে হাসবেন!

আমরা কি চাইনা আল্লাহ আমাদের দিকে তাকিয়ে হাসুক,খুশি হয়ে যাক, কিয়ামতের ভয়াবহ, ভয়ংকর সব পরিস্থিতি থেকে আমরা রক্ষা পাই, বিনা হিসেবে জান্নাতে চলে যাই?

তাহলে রাতে উঠুন, আল্লাহর সাথে কথা বলুন। জড়তা, অলসতা ঝেড়ে ফেলুন। আরামের বিছানা, সুন্দরী স্ত্রী ত্যাগ করুন। অল্প কিছুক্ষনের জন্য আল্লাহর দরবারে দাঁড়িয়ে যান। পৃথিবীর বাকী সবাই যখন গভীর ঘুমে আচ্ছন্ন, কেউ দেখছে না, কেউ জানছে না। শুধু আপনি আর আপনার মালিক। আপনি ও তো পারতেন সবার মত গভীর ঘুমে আচ্ছন্ন থাকতে!

কিন্তু কোন জিনিস আপনাকে এই শীতের রাতে আরামের বিছানা, সুন্দরী স্ত্রী ত্যাগ করতে বাধ্য করলো? সেটা হচ্ছে আল্লাহর প্রতি বুকভরা ভালোবাসা আর যথাযথ ভয়! তাহলে — কেন আপনার রব আপনাকে দেখে খুশি হবেন না, মুচকি হাসবেন না?

বাকি দুই ধরনের লোক হলো,
রাসূল ﷺ বলেন, আল্লাহ তিন ব্যক্তিকে ভালবাসেন ও তাদের দেখে হাসেন এবং তাদেরকে জান্নাতের সুসংবাদ দেন।

● যে ব্যক্তি আল্লাহর রাস্তায় যুদ্ধ করে শহীদ হয় অথবা যুদ্ধে সাহায্য করে,
● যে ব্যক্তির সুন্দরী স্ত্রী ও সুন্দর বিছানা রয়েছে। অথচ — সবকিছু ছেড়ে শেষ রাতে উঠে তাহাজ্জুদের ছালাত আদায় করে,
● যে ব্যক্তি সফরে কাফেলার সঙ্গে থাকা অবস্থায় ভাল থাক বা কষ্টে থাক ঘুম থেকে উঠে ছালাত আদায় করে। (হাকেম, হাদিস নং ১/২৫; সহীহাহ, হাদিস নং ৩৪৭৮)

1 টি মন্তব্য: