পরকালীন প্রস্তুতি

কুর'আন-সুন্নাহর আলোকে পরকালীন মুক্তির আশায় একটি পরকালমুখী উদ্যোগ

The Path to Guidance (Part-2)

● প্রত্যেক 'হারাম' যা কোন বান্দার মধ্যে থাকে, তা তার মন কুলষিত হওয়ার কারণেই । মনের কুলষিতা তার অন্তরকে আল্লাহর উপর ভরসা থেকে ঘুরিয়ে দেয় এবং তার পদমর্যাদা আল্লাহর নিকট কমে যায় । এই জন্য কিছু আলিম বলেছেনঃ

"এমন লোকের সাথে মিশতে সাবধান থেকো, যে সময় অপচয় করে এবং মনকে কুলষিত করে ।"

● যখন (কেউ) সময় অপচয় করবে, তখন তার মন কুলষিত হবে এবং তার আমল ধ্বংস হতে থাকবে । এদের সম্পর্কে সুমহান আল্লাহ তাআ'লা বলেনঃ

"আপনি তার অনুগত্য করবেন না, যে তার অন্তরকে আমার স্মরণ থেকে গাফেল করে রেখেছে, যে নিজের প্রবৃত্তির অনুসরণ করছে এবং যার আমল নষ্ট হয়ে যাচ্ছে ।" (সূরা আল কাহফঃ ২৮)

● যে কেউ প্রকৃতি এবং সৃষ্টির দিকে তাকালেই এটা উপলব্ধি করবে । তবে কিছু (মানুষ) ব্যতীত যারা নিজেদের ইচ্ছেমত চলে ও মহিমান্বিত আল্লাহ সম্পর্কে অমনযোগী এবং তারাই নিজেদেরকে ধ্বংসের দিকে ধাবিত করছে । তারা উপেক্ষা করছে ঐসব জিনিসকে যা তাদের উপকারে আসত এবং লাভবান হতো । তারা নিজেদেরকে এমন সব বিষয়ের উপর নিভৃত রাখছে যা তাদের কোন উপকারে আসবে না বরং এগুলো তাদের ইহকাল ও পরকালকে ক্ষতিই করে যাচ্ছে ।

● তারা ঐসব লোক যাদেরকে মান্য করতে আল্লাহ সুবাহানওয়া তাআ'লা নিষেধ করেছেন । রাসূল (সাঃ) এর প্রত অনুগত্যও যথাযথ হবে না যদি কেউ তাদেরকে মান্য (অনুসরণ) করে । কেননা তারা নিজেদের প্রবৃত্তির অনুসরণ করে এবং আল্লাহ সম্পর্কে অবহেলা করে । যখন কেউ আল্লাহর স্মরণ থেকে অমনযোগী হয়ে যায় এবং নিজেদের প্রবৃত্তিকে অনুসরণ করে, তখন তাদের পক্ষে কেবল মন্দ কাজই হয়ে থাকে ।

● যদি কেউ এই পৃথিবীর সর্বক্ষেত্রে কিংবা কোন নির্দিষ্ট বিষয়ে ক্ষতির উৎস খুঁজতে চায়, তবে দেখা যাবে এইগুলো উপরের দুটি নীতি (নিজ প্রবৃত্তির অনুসরণ ও আল্লাহর স্মরণের প্রতি অমনযোগী) থেকেই উৎপত্তি হয়েছে ।


মূলঃ হাফিজ ইবনুল কায়্যিম (রহঃ)
অনুবাদকঃ আরিফুল ইসলাম দিপু

কোন মন্তব্য নেই