Ticker

6/recent/ticker-posts

Advertisement

দোয়া কবুলের শর্তসমূহ

দোয়া এক প্রকার ইবাদাত । তাই অন্যান্য ইবাদতের মত দোয়া কবুলের জন্যেও কিছু শর্ত রয়েছে। এসব শর্ত পালন করা ব্যতীত দোয়া কবুলের আশা করা ঠিক নয়। দোয়া কবুলের শর্তসমূহ নিম্নে বর্ণিত হল:


১- একমাত্র আল্লাহর নিকট চাওয়াঃ

দোয়া কবুলের প্রধান শর্ত হল: প্রকৃতভাবে আল্লাহর নিকট চাওয়া। আল্লাহ ব্যতীত অন্য কারও নিকট কোন কিছু আশা না করা।

"আপনি আপনার পালনকর্তার নাম স্মরণ করুন এবং একাগ্রচিত্তে তাতে মগ্ন হন! তিনি পূর্ব ও পশ্চিমের পালনকর্তা। তিনি ব্যতীত অন্য কোন উপাস্য নেই। অতএব তাঁকেই গ্রহণ করুন, কর্ম বিধায়করূপে। -(সুরা: মুজ্জাম্মেল, ৮-৯)


২- সব সময় দোয়া অব্যাহত রাখাঃ

সব সময়ই দোয়া চালু রাখতে হবে। দোয়া করার কারণে কখনও ক্লান্ত হওয়া যাবে না। বিপদ আশার পরই শুধুমাত্র দোয়ার জন্যে হাত না তুলে, বিপদ আশার পূর্বেও দোয়া করতে হবে।

"(আর স্মরণ কর সে সময়ের কথা) যখন মানুষ কষ্টের সম্মুখীন হয়; তখন শুয়ে, বসে অথবা দাঁড়িয়ে আমাকে ডাকতে থাকে। তারপর আমি যখন তার থেকে কষ্টকে দূর করে দেই, তখন মনে হয়, কখনও কোনো কষ্টের সম্মুখীন হয়ে যেন সে আমাকে ডাকেইনি! সীমালংঘনকারীদের কার্যকলাপ তাদের নিকট এরূপই পছন্দনীয় মনে হয়। -(সুরা: ইউনুস, ১২)


৩- ইমান ও সৎকর্মঃ

দোয়া কবুল হওয়ার একটি গুরুত্বপূর্ণ শর্ত হচ্ছে ইমান ও সৎকর্মের মাধ্যমে দোয়া করতে হবে।

তিনি মোমিন ও সৎকর্মশীলদের দোয়া শোনেন এবং তাদের প্রতি স্বীয় অনুগ্রহ বাড়িয়ে দেন। আর কাফেরদের জন্যে রয়েছে কঠোর শাস্তি। -(সুরা: শুরা, ২৬)

আল্লাহ্‌ শুধুমাত্র পরহেজগারদের আমল কবুল করে থাকেন। -(সুরা: আল্‌ মায়েদা, ২৭)


৪- দোয়াকারী ব্যক্তির সম্পদ হালাল হওয়াঃ

কেননা, হারাম সম্পদ হচ্ছে দুআ কবুলের পথে অন্তরায় ও বাধা। ইমাম মুসলিম (রহ.) তার সহীহ গ্রন্থে আবু হুরায়রা (রা.) থেকে বর্ণনা করেন, তিনি বলেন রাসূলূল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ইরশাদ করেন :

"হে মানুষ সকল ! নিশ্চয় আল্লাহ পুত:পবিত্র, তিনি পবিত্র জিনিস ব্যতীত কবুল করেন না। নিশ্চয় আল্লাহ রাসূলদের যে আদেশ দিয়েছেন তা মুমিনদের জন্যও আদেশরূপে বিবেচ্য। আল্লাহ বলেন : হে রাসূলগণ! তোমরা পবিত্র বস্তু হতে আহার কর এবং সৎকাজ কর ; তোমরা যা কর সে সম্বন্ধে আমি সবিশেষ অবহিত।" (আল- মুমিনূন-৫১)

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ