পরকালীন প্রস্তুতি

কুর'আন-সুন্নাহর আলোকে পরকালীন মুক্তির আশায় একটি পরকালমুখী উদ্যোগ

ফিকহুস সিয়াম (পর্ব-৩)

● ইফতারের সুন্নাহসমূহ কি কি?

○ ইফতার শীঘ্র করা মুস্তাহাব:

নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেন: ''মানুষ কল্যাণের মধ্যে থাকবে যতদিন তারা শীঘ্র ইফতার করবে''। -(সহীহ আল বুখারী: ১৯৫৭; মুসলিম: ১০৯৮)

এছাড়া আবু দাউদে বর্ণিত এক হাদীসে এসেছে: ''দ্বীন বিজয়ী থাকবে যতদিন মানুষ শীঘ্র ইফতার করবে, কেননা ইহুদী ও নাসারারা (ইফতারে) বিলম্ব করে''।

সুতরাং শীঘ্র (সূর্য অস্ত যাওয়ার সাথে সাথে) ইফতার করা নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এর সুন্নাহ। আর সুন্নাহ্ অনুসরণেই নিহিত রয়েছে সকল কল্যাণ।

○ খেজুর দিয়ে ইফতার করা মুস্তাহাব:

আনাস রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত, আল্লাহর রসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম (মাগরিবের) সালাতের পূর্বে সতেজ খেজুর দিয়ে ইফতার করতেন, সতেজ খেজুর না থাকলে শুকনো খেজুর দিয়ে ইফতার করতেন, আর তা না থাকলে কয়েক ঢোক পানি পান করতেন। -(আবু দাউদ, তিরমিযী)

○ ইফতারের দু'আ:

ইবনে উমার রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত যে আআল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ইফতার করে বলতেন:

ﺫﻫﺐ ﺍﻟﻆﻣﺎ ﻭﺍﺑﺘﻠﺖ ﺍﻟﻌﺮﻭﻕ ﻭﺛﺒﺖ ﺍﻟﺎﺟﺮ ﺍﻥ ﺷﺎﺀ الله

উচ্চারণ: যাহাবায যামাউ ওয়াবাতাল্লাতিল উরুক্ব । ওয়া সাবাতাল আজরু ইন শা আল্লাহ্।

অর্থাৎ: তৃষ্ণা বিদূরিত হয়েছে, শিরা-উপশিরা আদ্র হয়েছে আর আল্লাহ্ চাইলে সওয়াব নির্ধারিত হয়েছে। -(আবু দাউদ, নাসাঈ)


● সেহরীর সুন্নাহসমূহ কি কি?

○ সেহরীর মধ্যে বরকত রয়েছে:

নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেন: ''তোমরা সেহরী কর, কেননা সেহরীতে বরকত রয়েছে''। -(সহীহুল বুখারী: ১৯২৩; মুসলিম: ১০৯৫)

○ আহলে কিতাব ও আমাদের মধ্যে পার্থক্যকারী:

নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন: ''আহলে কিতাব ও আমাদের সিয়ামের মধ্যে পার্থক্য হল সেহরী''। -(সহীহুল মুসলিম: ১০৯৬)

○ সেহরীকে বিলম্বিত করা:

নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এর সেহরী ও ফজরের সালাতের মাঝে ৫০-৬০ আয়াত পাঠের জন্য প্রয়োজনীয় যে সময়, সে সময় ব্যবধান ছিলো। -(সহীহুল বুখারী: ৫৭৫; মুসলিম: ১০৯৭)

○ জমহুরের মতে সেহরীর সময় মধ্যরাত্রিতে শুরু। -(আল মাওসূআহ আল ফিকহিয়্যাহ, ২৪/২৭০)


আরো পড়ুন:

কোন মন্তব্য নেই