পরকালীন প্রস্তুতি

কুর'আন-সুন্নাহর আলোকে পরকালীন মুক্তির আশায় একটি পরকালমুখী উদ্যোগ

বাচ্চাগুলোর উপর একটু রহম করুন!

মেডিকেলের এক বন্ধুর মাধ্যমে জানতে পারলাম, বাংলাদেশের অন্যতম সমালোচিত মডেল, নিত্যনতুন স্কান্ডাল জন্ম দেয়া যার কাজ, সে সরকারী মেডিকেল পাশ করা একজন ডাক্তার। (সেই মডেল কে আমি হুজুর হয়ে ক্যামনে চিনলান, সেই প্রশ্ন আপনি করতেই পারেন। উত্তর হল, এগুলা আপ্নারাই আমাকে চিনাইসেন, ফেসবুকে শেয়ার দিয়ে)


যাই হোক, এটা শোনার পরে, আমি হিসেব ঠিক মেলাতে পারছিলাম না, এটা কীভাবে সম্ভব! একটা আত্মমর্যাদাহীন অশিক্ষিত আর অর্ধশিক্ষিত মেয়ে নিজের শরীর বিক্রি করে বেড়াতে পারে কিন্তু একজন ‘উচ্চডিগ্রি’ ধারী ‘শিক্ষিত’ মেয়ে এসব কিভাবে করতে পারে?


পর্ণগ্রাফি বা হালাল পর্ণগ্রাফি (যেটা সমাজে নাটক, সিনেমা নামে পরিচিত) আমাদের শেখায় কীভাবে মেয়েদের এক্সপ্লয়েট করতে হয় আর মেয়েদের শেখায় কীভাবে ছেলেদেরকে নিজের শরীরের সৌন্দর্য দেখিয়ে ছেলেদের পাগল করে দিতে হয়।

এসব যে কীভাবে সমাজকে নষ্ট করছে, তা অকল্পনীয়। নানান পারিবারিক আর সামাজিক সমস্যার জন্যে সিনেমা নাটক সরাসরি দায়ী। শুধু এশিয়ার কথাই ধরুন, এসব শাহরুখ সালমানদের কি প্রভাব! অথচ এরা কি করেছে? সমাজের মধ্যে নষ্টামি প্রবেশ করানো আর মুসলিমদের ঈমানহারা করানো ছাড়া? তারা তাদের মুভির মাধ্যমে ইসলামকে এমন ভাবে বিকৃত করেছেন, ইসলামের বেশ কিছু বিধান দেখে আমি নিজেই মেনে নিতে পারিনি শুরুতে, শুধুমাত্র দ্বীনের আসল বুঝের অনুপস্থিতি আর সিনেমার প্রভাব ।
আল্লাহ্‌ সুবহানাহু ওয়া তায়ালা, বিশাল যুবসমাজ ধ্বংসের জন্যে, সমাজে অশ্লীলতা প্রচারের সাথে জড়িতদের যথাযথ পরিণাম দিক।


আল্লাহ্‌ মানুষকে মারাত্মক রকমের ভালোবাসা বিল্টইন দিয়েই সৃষ্টি করেছেন। বাচ্চাদের সাথে কিছুক্ষণ কথা বললেই বুঝতে পারবেন। দুনিয়ার কারো প্রতি কোন বিদ্বেষ তাদের নেই। বিশেষ করে মেয়েরা। ছেলেরা একটু ছন্নছাড়া টাইপেরই হয় আর সে তুলনায় আল্লাহ্‌ তাদেরকে অনেক বেশি কেয়ারিং আর মমতাময়ী করেই বানিয়েছে।

কিন্তু, এদের মধ্যে অনেকেই আবার বড় হয়ে হয় অভিনেতা অভিনেত্রী, মুভি-নাটক নির্মাতা বা অন্য কোন ভাবে সমাজ নষ্টের জন্যে দায়ী, এমনটা কেন হয়?

আপনি একটা বাচ্চাকে মাসের পর মাস যে নীতি নৈতিকতা শিক্ষা দিবেন, এসব মুভি নাটক সেটা কয়েক মিনিটেই তাদের হাতে কলমে ঠিক উল্টাটা শেখাবে। আর খারাপ, ক্ষতিকর জিনিসের প্রতি মানুষের আগ্রহ সহজাত


আপনাদের প্রতি অনুরোধ,
প্লিজ, বাচ্চাদের হাতে টিভির রিমোট তুলে দিবেন না। যদি নিজের আর পরিবারকে স্বাভাবিক সুন্দর আর স্বাস্থ্যকর রাখতে চান, এসব ডিশ টিভি মুভি ঝেটিয়ে বিদায় করুন, আল্লাহর কসম, এর জন্য কেউ মারা যাবে না, খারাপ কিছুই হবে না, বরং বাচ্চাগুলা স্বাভাবিক ভাবে বড় হতে পারবে, অনেক অশ্লীলতা থেকে বেঁচে যাবে। আর কেউ না হোক, আমরাতো, ভুক্তভোগী হিসেবে জানি, এসবে মাঝে ক্ষতি ছাড়া উপকার নেই, তাই না?


লিখেছেন: তৌহিদুল ইসলাম উদয়

1 টি মন্তব্য: