পরকালীন প্রস্তুতি

কুর'আন-সুন্নাহর আলোকে পরকালীন মুক্তির আশায় একটি পরকালমুখী উদ্যোগ

নারী মডেল আর অভিনেত্রীদের ঝলমলে জীবনের অন্তরালে

বিশ্বব্যাপী নারী মডেল-অভিনেত্রী-নারী তারকাদের আত্মহত্যা খুবই সাধারণ একটি ঘটনায় পরিণত হয়েছে। লক্ষ্যণীয় বিষয় পুরুষ তারকাদের আত্মহত্যার সংবাদ খুব বেশি আমরা পাই না। মানুষরূপী কিছু পুরুষ প্রজাতির প্রাণি একটা বিশেষ অঙ্গের জোরে কত সহজেই না এই মেয়েগুলোকে কাবু করে ফেলে। এরপরেও যারা এই সমস্ত পেশায় থাকা নারীদের সেক্সুয়ালি অবজেক্টিফাইড না ভেবে "এমপাওয়ার্ড" ভাবে তাদের মগজটা হয় অন্ধ নয়তো তারা এই শোবিজ জগতের ব্যবসায়ী বা এর থেকে কোনভাবে প্রফিট আদায়কারী।

চিন্তার বিষয় হল নারী মডেল আর অভিনেত্রীদের ঝলমলে জীবন দেখে অনেক সাধারণ মেয়েই তাদেরকে আইডল মানে, তাদের মত ফিগার, চেহারা বানানোর চেষ্টায় সাজগোজ, রূপচর্চা করে। অনেক সাধারণ মেয়ে না বুঝে এক অন্ধ মোহে পড়ে নানান রকমের ও নামের বিউটি কম্পিটিশনে অংশ নেয়, ভোট চায় প্রতিযোগিতায় জেতার জন্য। সুন্দর প্রোফাইল পিকচারে ঘন ঘন লাইক পায়, "একদম মডেল লাগছে" টাইপের লুতুপুতু কমেন্ট দেখে এইসব করার আরও উৎসাহ পায়। আমরা কি বুঝব "মডেল" শব্দটার মাঝে কোন গর্বের কিছু নাই, এই শব্দটা আদতে নিজেকে পণ্য বানানো ছাড়া কিছু না ?

সম্প্রতি তারকাদের দাম্পত্য জীবনের আড়ালে ঘর ভাঙ্গা, পরকীয়ার শিকার হয়ে আত্মহত্যাসহ বেশ কিছু ঘটনা মিডিয়াতে প্রায়ই দেখা যায় ৷ ইনডিয়ার জিয়ার খানের মৃত্যুর পর জেনেছি তিনি তার বয়ফ্রেন্ড দ্বারা দিনের পর দিন ধর্ষিত নির্যাতিতো হয়ে ছিলেন। সালমান শাহও পারিবারিক ভাবে অসুখি ছিলেন। মডেল রাহাও আত্মহত্যা করলেন। আর কিছুদিন আগে ঘটে যাওয়া মডেল সাবিরার আত্মহত্যা এদেরই পথচিহ্ন ৷

গণমাধ্যম- পত্রিকা, অনলাইন সংবাদমাধ্যম কিংবা স্যোশাল মিডিয়া পেজ খুলতে না খুলতেই এ ধরনের দু:খজনক ঘটনা চোখে পড়ছে। আগে কালে ভদ্রে কদাচিত যা ঘটতো তা এখন ঘটছে অহরহ। আর এসব এত বেশি চোখে পড়ে যে, যৌন হয়রানি, ধর্ষন, গণধর্ষণের মত ঘটনা খুব সহজ ও স্বাভাবিক মনে হতে চলেছে। বাস্তবিক অর্থে শিশুধর্ষণ, গণধর্ষণ ও ধর্ষণ শেষে হত্যার এসকল ঘটনা ক্রমশ: গ্রাস করছে আমাদের সভ্যতাকে। এভাবে চলতে থাকলে এক সময় এর পরিণতি কতটা ভয়াবহ হতে পারে তা ভাবলে গা শিউরে উঠে।

মেয়ে, তুমি যদি সাজো নিজের বিবেকের কাছে প্রতিজ্ঞা কর, তুমি নিজের ভালো লাগার জন্য সাজবে। স্রষ্টা তোমাকে সুস্থ শরীর দিয়েছেন, সেটার যত্ন তাঁকে ভালোবেসে নিজেকে ভালোবেসে নাও, কাউকে ইম্প্রেস করতে নয়। যদি ভালোবাসো নিজের অস্তিত্ব এবং সম্মান নিজের মুঠিতে রেখে ভালোবাসো। যদি ভুল কর, জেনো সপ্ত আকাশের উপরে একজন দয়াময় তোমার দিকে হাত বাড়িয়ে বসে আছেন ক্ষমা করার জন্য। জেনে রাখো আর যাই হোক "হতাশা" তোমার জন্য না মেয়ে।

কোন মন্তব্য নেই