পরকালীন প্রস্তুতি

কুর'আন-সুন্নাহর আলোকে পরকালীন মুক্তির আশায় একটি পরকালমুখী উদ্যোগ

কাউকে প্রশংসা করার মাসনুন জিকির ও প্রশংসিত হইলে মাসনুন জিকির

কাউকে প্রশংসা করার মাসনুন জিকির

কোন মানুষের পেছনে নিন্দা করা ও সামনে ঢালাওভাবে প্রশংসা করা উভয়ই অপরাধ। প্রশংসা করার ক্ষেত্রে কারো স্বভাব বা গুনের প্রশংসা করা যেতে পারে। তবে কারো ঢালাও প্রশংসা করতে নিষেধ করা হয়েছে।

প্রশংসার ক্ষেত্রে বলতে হবে - "আমার ধারণা অমুক ব্যক্তি ভালো" - নিশ্চয়তা প্রকাশ করা যাবেনা।

রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন–
"তোমাদের যদি কাউকে কখনো প্রশংসা করতেই হয় তাহলে বলবে- আমি অমুককে এইরুপ মনে করি, আল্লাহই তাকে ভালো জানেন, আমি আল্লাহর উপরে কাউকে ভালো বলছিনা, আমি তাকে অমুক অমুক গুণের অধিকারী বলে মনে করি।" (১)

কেউ প্রশংসিত হইলে মাসনুন জিকির

সাহাবী – তাবেয়ীগণের রীতি ছিলো – তাদের ধার্মিক বললে বা প্রশংসা করলে তারা কষ্ট পেতেন। কেউ তাদের ভালো বললে তারা বলতেন-
“হে আল্লাহ এরা যা বলছে এজন্য আমাকে দায়ি করবেন না। আর তারা যা জানেনা আমার সেসব পাপগুলো ক্ষমা করে দিন। (এবং তারা যে ধারণা করেছে আমাকে তার চেয়ে উত্তম বানিয়ে দিন)”। (২)

রেফারেন্স-

(১.) বুখারী – (৫৬- কিতাবুশ শাহাদাহ, ১৬ – বাবইযাযাক্কা), ২/৯৪৬। (ভারতীয় – ১/৩৬৬)। মুসলিম, (৫৩ কিতাবুজ যুহুদ, ১৪ – নাহইয়িআনিলমাধি), ৪/২২৯৬, (২/৪১৪)।

(২.) বুখারী, আল আদাবুল মুফরাদ, ১/২৬৭, বাইহাকী, শিয়াবুল ইমান, ৪/২২৭, ২২৮.আলবানী– সহীহুল আদাব ১/২৮২, হাদীস টি সহিহ তবে শেষ ব্রাকেটে বাক্যটি আলাদা একটি হাদীসে দুর্বল সনদে বর্ণীত।

সংগ্রহ
  • রাহে বেলায়াত ৫৩৬ +৫৩৭ ,পৃঃ
  • মরহুম আব্দুল্লাহ জাহাঙ্গীর।

কোন মন্তব্য নেই