Ticker

6/recent/ticker-posts

Advertisement

আপনার Bkash একাউন্টে ইন্টারেস্ট গ্রহণ করতে না চাইলে যা করবেন

ব্যাংকের হাজার হাজার টাকার সুদ যেমন হারাম ঠিক তেমনি বিকাশের ৫/১০ টাকার সুদও হারাম। যারা অনলাইনে হালালভাবে বিজনেজ করতে চান তাদের জন্য বিকাশের ব্যাপারটি জানা খুবই গুরুত্বপূর্ণ কেননা উনাদের ম্যাক্সিমাম পেইমেন্ট বিকাশেই এসে থাকে, সতর্ক না হলে অল্প কিছু সুদের টাকা চলে আসলেও হারাম খাওয়া হবে।

বিকাশের বিভিন্ন সার্ভিসের মধ্যে একটি হচ্ছে 'জমানো টাকার উপর ইন্টারেস্ট/সুদ প্রদান'। গ্রাহকের বিকাশ একাউন্টে গড়ে প্রতিদিন ১০০০ টাকা বা তার বেশি পরিমাণ টাকা থাকলে এবং মাসে অন্তত ২ টি লেনদেন করলে উক্ত গ্রাহককে বাৎসরিক হারে প্রতি মাসে নির্দিষ্ট হারে ইন্টারেস্ট/সুদ প্রদান করে থাকে।

বিষয়টি সম্পর্কে অবগত না থাকার কারণে এবং বিকাশ একাউন্টে টাকা জমা থাকার কারণে অনেকের মোবাইলেই মাস শেষে সুদ চলে আসছে। আপনি ইচ্ছা করলে বিকাশের "ইন্টারেস্ট/সুদ" সার্ভিসটি বন্ধ করে করে ফেলতে পারেন। সার্ভিসটি বন্ধ করে দিলে আপনার বিকাশ একাউন্টে টাকা জমা থাকলেও তার উপর সুদ আসবে না।

জাবির (রা.) সূত্রে বর্ণিত, তিনি বলেন, রসুল (সা.) সুদ গ্রহীতা, সুদ দাতা, সুদি কারবারের লেখক এবং সুদি লেনদেনের সাক্ষী— সবার ওপর লানত করেছেন। [মুসলিম, হাদিস ৪১৩৮]

আপনার বিকাশ একাউন্টে ইন্টারেস্ট গ্রহণ করতে না চাইলে নীচের ধাপগুলো অনুসরণ করুন-

আপনার বিকাশ একাউন্ট নম্বর থেকে 16247 এ কল করুন
ভাষা নির্বাচন করুন (বাংলার জন্যে ১ এবং ইংরেজীর জন্যে ২ )
জমানো টাকার উপর ইন্টারেস্ট এবং অন্যান্য তথ্যের জন্য ৫ চাপুন
ইন্টারেস্ট সংক্রান্ত তথ্যের জন্যে ১ চাপুন
ইন্টারেস্ট গ্রহণ বন্ধ করতে ১ চাপুন (সেবাটি পূর্বে বন্ধ করা থাকলে পুনরায় চালু করতে চাইলে ২ চাপুন)

অর্থাৎ কল রিসিভ হবার পর 1511 চাপলেই আপনার বিকাশ একাউন্টে ইন্টারেস্ট গ্রহণ সার্ভিসটি বন্ধ হয়ে যাবে।

আপনার অনুরোধটি গৃহীত হলে আপনাকে মেসেজ এর মাধ্যমে জানিয়ে দেওয়া হবে। যাদের মোবাইলে ইতোমধ্যে অনিচ্ছাসত্ত্বেও ইন্টারেস্ট/সুদ এর টাকা চলে এসেছে তারা উক্ত টাকা সাওয়াবের নিয়ত ব্যতীত সাদাকাহ করে দিবেন এবং ইস্তিগফার করবেন।

- [ সংগৃহীত]

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ