Ticker

6/recent/ticker-posts

Advertisement

আক্বিদা ও মানহাজ কাকে বলে?

 


প্রশ্ন: (عَقِيْدَةٌ) আক্বীদা কাকে বলে?

উত্তর: আক্বীদা (عَقِيْدَةٌ) শব্দটি আরবী। এর মূল হচ্ছে-(عَقْدٌ)।

(عَقْدٌ) এর আভিধানিক অর্থ হচ্ছে- গিট দেওয়া, চুক্তি করা, প্রতিশ্রুতি দেওয়া, কোন বন্ধনকে মজবুত করা।

মূল শব্দ (عَقْدٌ) এর অনুসারে আক্বীদা (عَقِيْدَةٌ) অর্থ- দৃঢ় বিশ্বাস।

আক্বীদা (عَقِيْدَةٌ) এর পারিভাষিক অর্থ- কোন ধর্ম, আদর্শ বা মতবাদকে মনে-প্রাণে দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করাকে আক্বীদা বলে। (আল-ইরশাদ ইলা সহীহিল ই’তিক্বাদ-৬, আল-আকীদাতুল ইসলামিয়্যাহ-৮)


প্রশ্ন: আক্বীদার উৎস কি?

উত্তর: আক্বীদার উৎস হলো কুরআন ও ছহীহ হাদীস। (মাজমুউল ফাতওয়া: ২৯-১৩/২৭-আকীদাতুল ইসলামিয়্যাহ-১০)


প্রশ্ন: সহীহ আক্বীদা কাকে বলে?

উত্তর: কুরআন ও সহীহ হাদিসের দলীল ভিত্তিক আক্বীদাই হলো সহীহ আক্বীদা। (আল-ইরশাদ ইলা সহীহিল ই’তিক্বাদ-৬)


প্রশ্ন: (مَنْهَجٌ) মানহাজ কাকে বলে?

উত্তর: মানহাজ অর্থ কর্মপথ, পন্থা, স্পষ্টপথ বা আদর্শ।

একজন মুসলিম যে পথ বা আদর্শ অনুসরণ করে চলে তাকে মানহাজ বলে। (আল-আজবিবাতুল মুফিদাহ-১২৫)

আল্লাহ তা‘আলা বলেন,


لِکُلٍّ جَعَلۡنَا مِنۡکُمۡ شِرۡعَۃً وَّ مِنۡهَاجًا

তোমাদের প্রত্যেকের জন্য আমি একটা করে শরীয়ত ও স্পষ্টপথ নির্ধারণ করে দিয়েছি। (সূরা মায়েদা-৪৮)


প্রশ্ন: আক্বীদা ও মানহাজের মাঝে পার্থক্য কি?

মানহাজ হচ্ছে আক্বীদার চেয়ে ব্যাপকার্থবোধক বিষয়।

কোন আদর্শ বা মতবাদকে মনে-প্রাণে দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করাকে আক্বীদা বলে আর একজন ব্যক্তি যে পথ বা আদর্শ অনুসরণ করে চলে তাকে মানহাজ বলে।

মানহাজ আকীদার ক্ষেত্রে যেমনি রয়েছে তেমনি আবার চাল-চলন,আদব-আখলাক,লেনদেন ইত্যাদি মুসলিম জীবনের প্রতিটি দিক নিয়েই মানহাজ রয়েছে।(আল-আজবিবাতুল মুফিদাহ-১২৫)

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ